Wellcome to National Portal
মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনা

  • ৮.৫২ লক্ষ ব্যক্তিকে বয়স্কভাতা, ৪.৪৭ লক্ষ জনকে বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা ভাতা এবং ২.৭৪ লক্ষ ব্যক্তিকে প্রতিবন্ধী ভাতা ও .১০৩ লক্ষ জন প্রতিবন্ধী শিশুকে শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান; শতভাগ প্রতিবন্ধী ব্যক্তির প্রতিবন্ধিতা সনাক্তকরণ, তার মাত্রা নিরূপন ও পরিচয়পত্র প্রদান করা হবে।
  • এছাড়াও রংপুর বিভাগের (রংপুর-৯টি, গাইবান্ধা-৮টি, কুড়িগ্রাম-১০ টি, লালমনিরহাট-৬টি, নীলফামারী-৭টি, দিনাজপুর-১৪টি, ঠাকুরগাঁও-৬ টি, পঞ্চগড়-০৬টি ) সর্বমোট=৬৬টি উপজেলার/শহর সমাজসেবা আওতাধীন ইউনিয়ন/ওয়ার্ডসমূহে শতভাগ বয়স্ক ভাতা, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলা ভাতা এবং প্রতিবন্ধী ভাতার যোগ্য ব্যক্তিদের ভাতা প্রদান নিশ্চিত করা হবে।
  • ১.৭৫ লক্ষ দরিদ্র ব্যক্তিকে উদ্বুদ্ধকরণ ও বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে ও বিনিয়োগ ও পুনঃবিনিয়োগের মাধ্যমে ১৩.২০ কোটি টাকা সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রদান করা হবে। যাতে নিম্নআয়ের জনগোষ্ঠী ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তির আত্মকর্মসংস্থান, নিজস্ব পুঁজি সৃষ্টি, দারিদ্র্য হ্রাস এবং ক্ষমতায়নের মাধ্যমে তাদের জীবনমান বৃদ্ধি পাবে;
  • সমাজের বিশেষ শ্রেণি বিশেষতঃ হিজড়া, বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে ৪৫৭ জন ব্যক্তিকে প্রশিক্ষণ, ৩৪০১ ব্যক্তিকে বিশেষ ভাতা ও ২২০৩ শিশুকে শিক্ষা বৃত্তি চালুর মাধ্যমে ব্যক্তির জীবনমান উন্নয়ন করা হবে;
  • চা-শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে ০৩ (তিন) জেলায় ১২১৩ জনের (পঞ্চগড়, লালমনিরহাট ও ঠাকুরগাঁও) প্রশিক্ষণ ও এককালিন আর্থিক অনুদান বিতরণ নিশ্চিত করা হবে;
  • ১১টি সরকারি শিশু পরিবার ও ৮টি সমন্বিত দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে ১৪০৫ জন সুবিধাবঞ্চিত এতিম ও প্রতিবন্ধী শিশুর আবাসন, শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন নিশ্চিত করা হবে;
  • প্রতিবন্ধিতা শনাক্তকরণ জরিপের কেন্দ্রীয় তথ্য ভান্ডারে সংরক্ষিত ৩১০০০৮ (৩০ জুন,২০২২ খ্রি. পর্যন্ত) জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তির তথ্য বিশ্লেষণ করে তাদের উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় আনার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে;
  • অবশিষ্ট ০৫ জেলায় জেলা সমাজসেবা কমপ্লেক্স নির্মাণ সম্পন্ন করা হবে, 
  • বাংলাদেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে ২৯৬৮৪ জন কামার, কুমার, নাপিত, মুচি, বাঁশ-বেত ও কাশা-পিতল প্রস্তুতকারকের দক্ষতা উন্নয়ণ করে উদ্যোক্তা ও স্থানীয় পর্যায়ে তাদের আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করা ।

SDGs এর লক্ষ্যমাত্রা ৫.৪.১ এর আলোকে অবৈতনিক গৃহাস্থালী কাজের মর্যাদা উন্নীতকরণে সচেতনতা বৃদ্ধি করা হবে।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

সেবাদানে শুদ্ধাচার অনুশীলন নিশ্চিতকরণ, ইনোভেশনকে উৎসাহিত করা, সেবাগ্রহিতার পরিতৃপ্তির জন্য কার্যকর পরিষেবা প্রদান  এবং সেবা প্রদান পদ্ধতিকে ২০২৫ সালের মধ্যে ডিজিটালাইজ করা হবে। ২০২১-২০২২ অর্থবছরের মধ্যে বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়, রংপুর’র সকল সেবাগ্রহীতার একটি সমন্বিত ডিজিটাল তথ্য ভান্ডার তৈরি সম্পন্ন করা। বিগত অর্থবছরে G2P পদ্ধতিতে ভাতা প্রদানের অভিজ্ঞতার আলোকে চ্যালেঞ্জসমূহ বিশ্লেষণ করে চলমান অর্থবছরে একটি সমন্বিত ও নির্ভূল ডিজিটাল তথ্যভান্ডার তৈরী এবং G2P পদ্ধতিতে ভাতাভোগীদের ভাতা প্রদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। আত্মকর্মী গড়ে তোলার লক্ষ্যে সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রম গতিশীল করা হবে। শিশু সুরক্ষা কার্যক্রম, দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ গতিশীল করার মাধ্যমে দক্ষ জনবল বৃদ্ধি করা হবে।

২০২১- অর্থবছরের সম্ভাব্য প্রধান অর্জনসমূহ

  • ৭.83 লক্ষ ব্যক্তিকে বয়স্কভাতা প্রদান;
  • ৪.৪০ লক্ষ জনকে বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা ভাতা প্রদান;
  • ২.৭৪ লক্ষ ব্যক্তিকে প্রতিবন্ধী ভাতা ও ১২ হাজার জন প্রতিবন্ধী শিশুকে উপবৃত্তি প্রদান;
  • সমাজের বিশেষ শ্রেণি বিশেষতঃ হিজড়া, বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে ৪৫৭ জন ব্যক্তিকে প্রশিক্ষণ, ৩৬২৮ ব্যক্তিকে বিশেষ ভাতা ও ২৫০০ শিশুকে শিক্ষা বৃত্তি চালুর মাধ্যমে ব্যক্তির জীবনমান উন্নয়ন করা হবে;
  • চা-শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে ০৩ (তিন) জেলায় ৪৯৩৬ জন (পঞ্চগড়, লালমনিরহাট ও ঠাকুরগাঁও) প্রশিক্ষণ ও এককালিন আর্থিক অনুদান বিতরণ নিশ্চিত করা হবে;
  • ১১টি সরকারি শিশু পরিবার ও ৮টি সমন্বিত দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে ১৪০৫ জন সুবিধাবঞ্চিত এতিম ও প্রতিবন্ধী শিশুর আবাসন, শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন নিশ্চিত করা হবে;
  • প্রতিবন্ধিতা শনাক্তকরণ জরিপের কেন্দ্রীয় তথ্য ভান্ডারে সংরক্ষিত 310008 (20 জুন, ২০২১ খ্রি. পর্যন্ত) জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তির তথ্য বিশ্লেষণ করে তাদের উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় আনার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে;
  • বাংলাদেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে ৮০০০ জন কামার, কুমার, নাপিত, মুচি, বাঁশ-বেত ও কাশা-পিতল প্রস্তুতকারকের দক্ষতা উন্নয়ন করে উদ্যোক্তা ও চাকুরীর উপযুক্ত হিসেবে রূপান্তর করা হবে।
  • SDGs এর লক্ষ্যমাত্রা ৫.৪.১ এর আলোকে অবৈতনিক গৃহাস্থালী কাজের মর্যাদা উন্নীতকরণে সচেতনতা বৃদ্ধি করা হবে।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

সেবাদানে শুদ্ধাচার অনুশীলন নিশ্চিতকরণ, ইনোভেশনকে উৎসাহিত করা, সেবাগ্রহিতার পরিতৃপ্তির জন্য কার্যকর পরিষেবা প্রদান  এবং সেবা প্রদান পদ্ধতিকে ২০২৩ সালের মধ্যে ডিজিটালাইজ করা হবে। ২০২৩ সালের মধ্যে বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়, রংপুর’র সকল সেবাগ্রহীতার একটি সমন্বিত ডিজিটাল তথ্য ভান্ডার তৈরি সম্পন্ন করা হবে। ২০২৩ সালের মধ্যে সামাজিক নিরাপত্তা কার্যক্রমের প্রভাব মূল্যায়নের মাধ্যমে জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা কৌশল বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বিকাশমান কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করা হবে।

২০২২- অর্থবছরের সম্ভাব্য প্রধান অর্জনসমূহ

  • ৮.৫২ লক্ষ ব্যক্তিকে বয়স্কভাতা, ৪.৪৭ লক্ষ জনকে বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা ভাতা এবং ২.৭৪ লক্ষ ব্যক্তিকে প্রতিবন্ধী ভাতা ও .১০৩ লক্ষ জন প্রতিবন্ধী শিশুকে শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান; শতভাগ প্রতিবন্ধী ব্যক্তির প্রতিবন্ধিতা সনাক্তকরণ, তার মাত্রা নিরূপন ও পরিচয়পত্র প্রদান করা হবে।
  • এছাড়াও রংপুর বিভাগের (রংপুর-৯টি,গাইবান্ধা-৮টি,কুড়িগ্রাম-১০ টি, লালমনিরহাট-৬টি , নীলফামারী-৭টি, দিনাজপুর-১৪টি,ঠাকুরগাঁও-৬ টি, পঞ্চগড়-০৬টি ) সর্বমোট=৬৬টি উপজেলার/শহর সমাজসেবা আওতাধীন ইউনিয়ন/ওয়ার্ডসমূহে শতভাগ বয়স্ক ভাতা, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলা ভাতা এবং প্রতিবন্ধী ভাতার যোগ্য ব্যক্তিদের ভাতা প্রদান নিশ্চিত করা।
  • ১.৭৫ লক্ষ দরিদ্র ব্যক্তিকে উদ্বুদ্ধকরণ ও বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে ও বিনিয়োগ ও পুনঃবিনিয়োগের মাধ্যমে ১৩.২০ কোটি টাকা সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রদান করা হবে। যাতে নিম্নআয়ের জনগোষ্ঠী ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তির আত্মকর্মসংস্থান, নিজস্ব পুঁজি সৃষ্টি, দারিদ্র্য হ্রাস এবং ক্ষমতায়নের মাধ্যমে তাদের জীবনমান বৃদ্ধি পাবে;
  • সমাজের বিশেষ শ্রেণি বিশেষতঃ হিজড়া, বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে ৪৫৭ জন ব্যক্তিকে প্রশিক্ষণ, ৩৪০১ ব্যক্তিকে বিশেষ ভাতা ও ২২০৩ শিশুকে শিক্ষা বৃত্তি চালুর মাধ্যমে ব্যক্তির জীবনমান উন্নয়ন করা হবে;
  • চা-শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে ০৩ (তিন) জেলায় ১২১৩ জন (পঞ্চগড়, লালমনিরহাট ও ঠাকুরগাঁও) প্রশিক্ষণ ও এককালিন আর্থিক অনুদান বিতরণ নিশ্চিত করা হবে;
  • ১১টি সরকারি শিশু পরিবার ও ৮টি সমন্বিত দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে ১৪০৫ জন সুবিধাবঞ্চিত এতিম ও প্রতিবন্ধী শিশুর আবাসন, শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন নিশ্চিত করা হবে;
  • প্রতিবন্ধিতা শনাক্তকরণ জরিপের কেন্দ্রীয় তথ্য ভান্ডারে সংরক্ষিত 310008 (৩০ জুন,২০২২ খ্রি. পর্যন্ত) জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তির তথ্য বিশ্লেষণ করে তাদের উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় আনার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে;
  • অবশিষ্ট ০৫ জেলায় জেলা সমাজসেবা কমপ্লেক্স নির্মাণ সম্পন্ন করা হবে, 
  • বাংলাদেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবন-মান উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে ২৯৬৮৪ জন কামার, কুমার, নাপিত, মুচি, বাঁশ-বেত ও কাশা-পিতল প্রস্তুতকারকের দক্ষতা উন্নয়ণ করে উদ্যোক্তা ও স্থানীয় পর্যায়ে তাদের আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করা ।
  • SDGs এর লক্ষ্যমাত্রা ৫.৪.১ এর আলোকে অবৈতনিক গৃহাস্থালী কাজের মর্যাদা উন্নীতকরণে সচেতনতা বৃদ্ধি করা হবে।

 

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter